আর্টিকেল লিখে মাএ ৭ টি উপায়ে কিভাবে আয় করবেন

আর্টিকেল বা পোস্ট লিখে কিভাবে সাত রকম উপায়ে ইনকাম করতে পারবেন তার সকল নিয়ম- কানুন সবকিছু আপনাদেরকে জানানোর জন্য আজকের পোস্টটি। এখন যে 7 টি উপায়ে খুব সহজে আপনারা আর্টিকেল লিখে আয় করতে পারবেন তার বিস্তারিত আলোচনার মধ্য দিয়ে  A To Z তুলে ধরবো। এবং এই আর্টিকেল লিখে কত টাকা আয় করা যায় তাও এই পোস্টে আলোচনা করব।

আর্টিকেল লিখে কিভাবে এবং কত টাকা আয় করতে পারবো তার পূর্বে আমাদের জানতে হবে যে আর্টিকেল জিনিসটা আসলে কি?

আমি জানি অলরেডি যারা আমার এই পোস্টটা করেছেন তারা বুঝতে পারছেন যে আর্টিকেল জিনিসটা কি। তারপরও যারা নতুন দুই একজন আছেন যারা আমার এই লেখাটা প্রথম পড়ছেন তাদের জন্য আমি সংক্ষেপে আবারো বলার চেষ্টা করছি।

যেমন ধরেন আমাদের সাইট ওয়েব শরিফুল সাইটটিতে আমাদের অনেকগুলো টপিক আছে যার মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন টপিকগুলো দিয়ে নিজেদের মনের মতো করে লিখে তা পোস্ট করতে পারি। এর জন্য আমাদের কোনো অতিরিক্ত সময় ব্যয় করতে হয় না। আমরা আমাদের ইচ্ছামত কয়েক ঘণ্টা কাজ করলেই হয়ে যায়। তো এই বিভিন্ন টপিক এর উপরে আমরা যে লেখাগুলো পোস্ট করছি মূলত এগুলোই আমরা আর্টিকেল বলতে পারি।

তো এর থেকে আর্টিকেলের আর সহজ সংজ্ঞা হয় বলে আমার মনে হয় না। তবুও একটা উদাহরণ দিচ্ছি, যেমন অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য লেখা থাকে। যেটা পড়ার মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার কাজটি করে নিতে পারেন মূলত  এই বিস্তারিত আলোচনায় আর্টিকেল বা পোস্ট।

কোন ভাবে আপনিও আর্টিকেল লিখে কত টাকা আয় করতে পারবেন না পারবেন তা এই পোস্টটি পড়লে খুব সহজেই বুঝতে পারবেন।

আর্টিকেল লেখার যে সহজ ৭টি উপায় আছে সেগুলো একবার দেখে নেই।

  • নিজের সাইটে আর্টিকেল লেখা। 
  • আর্টিকেলে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করা।
  • অন্যদের কাছে আর টিকিট বিক্রি করা।
  • ফ্রিল্যান্সিং সাইটে আর্টিকেল বিক্রি করে ইনকাম করা।
  • আর্টিকেল লেখার জব বা চাকরি করা।
  • আর্টিকেল লেখার সাইট বিক্রি করে ইনকাম করা।
  • আর্টিকেল লোকাল এন্ড দেখানোর মাধ্যমে ইনকাম করা।

এবারে উপরের উল্লেখিত 7 টি উপায় কিভাবে  ইনকাম করতে পারব আর্টিকেল লিখে তার বিস্তারিত আলোচনা করব।

1. নিজের সাইট আর্টিকেল লেখা।

আপনি যদি নিজের সাইডে আর্টিকেল লিখে ইনকাম করতে চান তাহলে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন তা আমার পোস্টে বলে দিচ্ছি।আমরা যখন গুগলের বিভিন্ন আর্টিকেলগুলো পড়ি তখন সাইটে বিভিন্ন এড চলে আসে যখন লোকজন যখন পড়ে তখন অ্যাডগুলো স্থির হয়ে থাকে বা এড গুলো দেখানো হয়। তখন এই অ্যাড গুলো দেখানোর মধ্য দিয়ে আমরা ইনকাম করে থাকি। এই অ্যাড গুলো হচ্ছে গুগল এডসেন্স কোম্পানির এড যেগুলো বিভিন্ন সাইটের হয়ে থাকে। অ্যাডগুলো তাদের বিভিন্ন জায়গাতে প্লেসমেন্ট করে রাখা হয়। এই অ্যাড গুলো দেখানোর মাধ্যমে তারা ইনকাম করে থাকে। তো আমরাও কিভাবে নিজের সাইটে আর্টিকেল লিখে ইনকাম করতে পারি তার প্রথম উপায়টি বলে দিলাম আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন।

2. আর্টিকেলে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করা।

আমি আগেই google-adsense কি তা বলে দিয়েছি তো এখন আর এটা নিয়ে আলোচনা না করে পরবর্তী উপায় নিয়ে আলোচনা করি।

গুগল এডসেন্স সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে 

3. অন্যদের কাছে আর টিকিট বিক্রি করা।

অন্যদের কাছে আর্টিকেল বিক্রি করা এ্যপাচি নিয়ে অনেকের মনে প্রশ্ন হতে পারে,যে অন্যদের কাছে কিভাবে আর টিকিট বিক্রি করে ইনকাম করা যায়। তো আমাদের মত অনেক রাইটার আছে যারা আর্টিকেল লিখে নিজেরা পাবলিস্ট না করে বিক্রি করে দেয়। বিভিন্ন সাইট আছে যারা আর্টিকেলগুলো কেনে তারা নিজেদের ওয়েবসাইটে পোস্ট করে। এ আর্টিকেলগুলো লেখার মানের উপর ভিত্তি করে বেশ ভালো দামে বিক্রি করে টাকা আয় করা সম্ভব। তাহলে বুঝতেই পারছেন যে আপনি যদি আর্টিকেল লিখে অন্যদের ওয়েবসাইটের বিক্রি করতে চান সেক্ষেত্রে আপনি ইনকাম করতে পারবেন। যদি একটা টিম তৈরি করে ভালো মানের অনেক আর্টিকেল লিখে প্রতিমাসে বিক্রি করেন তাহলে ও আরো বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আশা করি আর্টিকেল লিখে বা বিক্রির মাধ্যমে কিভাবে টাকা আয় করা সম্ভব তার একটি স্বচ্ছ ধারণা আপনারা পেয়েছেন।

এবার চলে যাই আমরা চতুর্থ উপায়ে।  এবার চার নম্বর উপায়ে আমরা কিভাবে আয় করতে পারব তা জেনে নেই।

4. ফ্রিল্যান্সিং সাইটে আর্টিকেল বিক্রি করে ইনকাম করা।

তো ফ্রিল্যান্সিং সাইটে আর্টিকেল বিক্রি করে ইনকাম করে কি আদৌ করা যায় কিনা তা নিয়ে কথা বলবো এবং কিভাবে করা যায় তাও জানানোর চেষ্টা করব।

আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন যে fiverr.com নামে একটা ওয়েবসাইট আছে যেখানে বিভিন্ন বিষয়ে কাজ করে ফ্রিল্যান্সিং করা যায় বাসায় বসে থাকে। সিং এর সাইডে মন একটা ফাইবার এক এক রকম ভাবে তাদের চার্জ রাখে। যেমন ধরেন একজন 400 থেকে 1000 শব্দের একটি আর্টিকেল লিখে দিবে তিনি 100 ডলার নেবে এমন ভাবে আরো অনেক আছে যারা তাদের চার্জ নিয়ে থাকেন। তাহলে 400 থেকে 1000 শব্দের জন্য 1000 ডলার লিখে বাংলাদেশের টাকায় প্রায় 6000 টাকা হয়।

যা তিনি কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে পেয়ে থাকেন কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং সাইটে আর্টিকেল লীগকেও একটা ভালো ইনকাম করা সম্ভব।

5. আর্টিকেল লেখার জব বা চাকরি  করা।

আমাদের দেশে অনেক ভালো ভালো ওয়েবসাইট আছে যেখানে শুধু আর্টিকেল লিখার জবের পোস্ট করে থাকে। সেখানে আপনি চাইলে তাদের একটা সেলারি তে আর্টিকেল লিখে মাসে একটা ভালো ইনকাম করার সুযোগ পাচ্ছেন।

6. সাইট বিক্রি করে ইনকাম করা।

আপনারা যদি মনে করেন যে একটা ভাল আর্টিকেল সাইট আছে সেটা বিক্রি করবেন তো সেটা করেও আপনি ইনকাম করতে পারবেন। যেমন অনেক ওয়েবসাইট বিভিন্ন আর্টিকেল লেখার সাইট তৈরী করে থাকে এবং সেটা একটা ভালো মূল্যের বিনিময়ে বিক্রি করে দিচ্ছেন এবং এই ভাবে আপনারাও অনেক টাকা আয় করতে পারবেন। 

ওয়েবসাইট বিক্রি করার জন্য সবচেয়ে বড় মার্কেটপ্লেস: https://flippa.com/

7. আর্টিকেল লোকাল এন্ড দেখানোর মাধ্যমে টাকা আয় করার উপায়।

যেমন ধরুন আপনার একটা ওয়েবসাইট আছে সেখানে আপনার ডেইলি ভিউ হয় 40 থেকে 50 হাজার। এই 40 থেকে 50 হাজার ব্যক্তিকে আপনারা চাইলে লোকাল বিজ্ঞাপন দেখাতে পারবেন। আর এই অ্যাডগুলো দেখার ফলে অনেকে আপনাদের সাইটে গিয়ে ভিজিট করবে কা ধরতে চাইবে। তো এইভাবে যখন কেউ কাজ করবে তখন আপনাদের ইনকাম হয়ে যাবে।

তাহলে আপনারা বুঝতেই পারছেন যে মাত্র সাতটি উপায় অবলম্বন করে আপনারা বেশ ভালো একটা ইনকাম করার সুযোগ পাচ্ছেন। আশা করি আমার আর্টিকেলটি পড়ে একটু হলেও সবাই উপকৃত হবেন।ধন্যবাদ। 

Enjoyed this article? Stay informed by joining our newsletter!

Comments
Pipasa - এপ্র 9, ২০২২, 4:52 সকাল - Add Reply

tnx

You must be logged in to post a comment.

You must be logged in to post a comment.

লেখক সম্পর্কেঃ